গত ৩ জুলাই আল জাজিরায় প্রচারিত ‘১০১ ইস্ট’ অনুষ্ঠানে ২৫ মিনিট ৫০ সেকেন্ডের ওই প্রতিবেদন প্রচারিত হয়। এতে করোনাভাইরাস মহামারিতে মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসীদের সঙ্গে সরকারের আচরণ নিয়ে কথা বলেছিলেন রায়হান কবির।

সংবাদমাধ্যমটির ইউটিউব চ্যানেলে প্রতিবেদনটি প্রকাশের পর থেকে সমালোচনা শুরু হয়। দেশটির সরকার এমন অভিযোগ সরাসরি অস্বীকার করেছে। ২৪ জুলাই সন্ধ্যায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। ২৫ জুলাই তাকে ১৪ দিনের এবং পরে আবার নতুন করে ১৩ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়।

রায়হানের আইনজীবী জানিয়েছেন, অভিবাসন কর্তৃপক্ষের আবেদনে উল্লেখ করা জাতীয় অখণ্ডতার স্বার্থে হাই কোর্ট রিমান্ড বহাল রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, প্রথম দফার ১৪ দিনের রিমান্ড যথেষ্ট বলে আমাদের কাছে মনে হয়েছিল। তাই দ্বিতীয় দফা রিমান্ডের মেয়াদ কমানোর আবেদন আমরা করেছিলাম।

এর আগে মালয়েশিয়ার অভিবাসন কর্তৃপক্ষের মহাপরিচালক ইন্দিরা খায়রুল দায়মি দাউদ বলেছিলেন, আগামী ৩১ আগস্ট মালয়েশিয়া থেকে বাংলাদেশে ফ্লাইট আসবে। ওই ফ্লাইটেই ফেরত পাঠানো হতে পারে রায়হানকে।

Previous post বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিদের ফেরানোর সবশেষ তথ্য জানালেন আইনমন্ত্রী
Next post ভেনিসে বাংলাদেশিদের ঈদ পুনর্মিলনী
Close