শিল্প সাহিত্যের দেশ ফ্রান্সে প্রদর্শিত হচ্ছে রুবাইয়াত হোসেনের চলচ্চিত্র  ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’। ফ্রান্স, ডেনমার্ক, পর্তুগাল ও বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ছবিটি আগামী ৪ ডিসেম্বর থেকে একযোগে ফ্রান্স, পর্তুগাল, ডেনমার্ক, নরওয়ে এবং ইউরোপের কয়েকটি দেশের সিনেমা হলে মুক্তি পাবে।

ইতিমধ্যে প্যারিসের বাস ও মেট্রো ষ্টেশনগুলোতে লাগানো হয়েছে সিনেমাটির পোষ্টার। ভিনদেশে চলার পথে হঠাৎ বাংলায় ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ লেখা সিনেমাটির পোষ্টার দেখে কৌতূহল নিয়ে এটি দেখছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়নে ও আত্মনির্ভরশীলতা অর্জনে পোশাকশিল্পের যে ভূমিকা আছে তার আলোকে দৃঢ়চেতা নারী পোশাকশ্রমিকদের সংগ্রাম ও সাফল্যের গল্প বলা হয়েছে ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ চলচ্চিত্রে।

ফ্রান্স, ডেনমার্ক, পর্তুগাল ও বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ এর কাজ শুরু হয় ২০১৬ থেকে। এই চলচ্চিত্রের মূল অর্থায়ন এসেছে ফ্রান্স সরকারের সিএনসি ফান্ড, নরওয়ে সরকার প্রদত্ত সোরফন্ড প্লাস, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন প্রদত্ত ইউরিমাজ ফান্ড ও ডেনমার্কের ড্যানিশ ফিল্ম ইন্সটিটিউট ফান্ড থেকে।

ছবিটির প্রযোজক ফ্রঁসোয়া দ্য’আক্তেমেয়ার (ফ্রান্স) ও আশিক মোস্তফা (বাংলাদেশ) এবং যৌথ প্রযোজক পিটার হিল্ডাল (ডেনমার্ক), পেদ্রো বোর্হেস (পর্তুগাল) ও আদনান ইমতিয়াজ আহমেদ (বাংলাদেশ)।
ছবিতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন রিকিতা নন্দিনী শিমু, নভেরা হোসেন, দীপান্বিতা মার্টিন, পারভীন পারু, মায়াবি মায়া, মোস্তফা মনোয়ার, শতাব্দী ওয়াদুদ, জয়রাজ, মোমেনা চৌধুরী, ওয়াহিদা মল্লিক জলি ও সামিনা লুৎফা প্রমুখ। দুটি অতিথি চরিত্রে অভিনয় করেছেন মিতা চৌধুরী ও ভারতের শাহানা গোস্বামী।

বাংলাদেশের খনা টকিজ ও ফ্রান্সের লা ফিল্মস দ্য এপ্রেস-মিডির ব্যানারে নির্মিত ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ ছবিটির পরিবেশক ও আন্তর্জাতিক বিক্রয় প্রতিনিধি ফ্রান্সের শীর্ষস্থানীয় পরিবেশক পিরামিড ফিল্মস।