প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাতিসংঘ সফরের সমর্থনে প্রবাসীদের ঐক্যবদ্ধ করার অভিপ্রায়ে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ এবং আওয়ামী পরিবারের ব্যানারে গত বুধবার নিউইয়র্কে এক র‌্যালি হয়। জ্যাকসন হাইটসে ডাইভার্সিটি প্লাজায় এ র‌্যালিতে ‘বিশ্বনেতা শেখ হাসিনাকে স্বাগত’, ‘মানবতার অনন্য প্রতীক শেখ হাসিনাকে নিউইয়র্কে স্বাগত’ ইত্যাদি লেখা প্ল্যাকার্ড শোভা পায়।

এতে বক্তব্যকালে আওয়ামী লীগ নেতা ড. প্রদীপ রঞ্জন কর বলেছেন, ‘হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু মুজিবের কন্যা শেখ হাসিনা বিশ্ব মানবতার নেতা হিসেবে জাতিসংঘে আসবেন। তাই প্রবাসীরাও তাকে সেই মর্যাদায় স্বাগত জানাবে জেএফকে এয়ারপোর্ট, জাতিসংঘ এবং অন্যসব কর্মসূচিতে।’ ড. প্রদীপ উল্লেখ করেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় জেগে উঠা বাঙালিদের এই প্রবাসেও সুসংগঠিত করার স্বার্থে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সম্মেলনের প্রয়োজন দেখা দিয়েছে। সময়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এবং সাংগঠনিকভাবে অভিজ্ঞ ব্যক্তিগণের নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নতুন কমিটির দাবি আজ সর্বজনবিদিত। সকলেই আশা করছেন সংগঠনের সভাপতি শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে কাউন্সিল অধিবেশন হবে।

এ সময় নেতৃবৃন্দের মধ্যে আরও ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান চৌধুরী, শাহ বখতিয়ার, মিসবাহ আহমেদ, ফরিদ আলম, শরিফ কিউ আলম হীরা, কায়কোবাদ খান, অধ্যাপিকা মমতাজ শাহানা, সাখাওয়াত হোসেন চঞ্চল, রাফিকুর রহমান তুরান, মঞ্জুর চৌধুরী, জামাল হোসেন, সেবুল মিয়া, ইফজাল চৌধুরী, মহিদুল ইসলাম, জামাল আহমেদ প্রমুখ। 

উল্লেখ্য, শেখ হাসিনার জাতিসংঘ সফরের সমর্থনে আগামী ৮ সেপ্টেম্বর রবিবার বিকালে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের এক কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে জ্যাকসন হাইটসে পালকি পার্টি সেন্টারে। সেখানে নতুন কমিটি গঠনের দাবিতে নেতা-কর্মীদের স্বাক্ষর সম্বলিত একটি রেজ্যুলেশন করার কথা। এছাড়া, ২৮ সেপ্টেম্বর ম্যারিয়ট মারকুইসে শেখ হাসিনার নাগরিক সংবর্ধনাকে সফল করার লক্ষ্যে বিভিন্ন সাব কমিটি গঠনেরও কথা রয়েছে। আরো উল্লেখ্য, জাতিসংঘের ৭৪তম অধিবেশনে শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগামী ২২ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে আসার কথা। এরপর ২৯ সেপ্টেম্বর ৭৩তম জন্মদিন উদযাপন শেষে ঢাকার উদ্দেশ্যে নিউইয়র্ক ত্যাগ করবেন শেখ হাসিনা।