গত ৬ ও ৭ জুলাই ২০১৯ (শনি ও রবিবার) দুইদিন ব্যাপী উদযাপিত হল ১৯তম বৈশাখী মেলা। যা ছিল বাংলাদেশ এসোসিয়েশন সোসাইটি (বিএএস) এর প্রধ, প্রযোজনা। বিগত দিনের বৈশাখী মেলা কমিটির সদস্যদের উদ্যোগে নির্মিত হয়েছে বিএএস।
সকলের একান্ত প্রচেষ্টায় সাফল্যের সাথে সমাপ্ত হয়েছে উক্ত মেলা। প্রথম দিনে লালন সম্রাগী ফরিদা পারভিন ও বংশি বাদক আব্দুল হাকিম দর্শকদের মাতিয়ে রাখেন। দ্বিতীয় দিনের আয়োজনে প্রধান আকর্ষণ ছিল মাইলসের ৪০ বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান। সকলে তাদের এ আয়োজনে ডুবে যায় গানের জগতে।
বাংলাদেশ এসোসিয়েশন সোসাইটি তাদের প্রথম প্রয়াসে বিশিষ্ট কমিউনিটি একটিভিষ্ট মমিনুল হক বাচ্চুকে আজীবন সম্মাননা প্রদান করেন। এ সময় মরনত্তর সম্মাননা প্রদান করা হয় বিশিষ্ট সমাজ সেবী ও সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব মরহুম মিজান শাহীনকে। তার পক্ষে সম্মাননা ক্রেস্ট গ্রহণ করেন তার স্ত্রী শিউলি মিজান।
সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা ও উপস্থাপনায় ছিলেন সদ্য প্রয়াত আশরাফ আহম্মেদ মিলন। দু:খের বিষয় বৈশাখী মেলার দুই দিন পরেই অকালে হঠাৎভাবে মৃত্যুবরণ করেন তিনি। যা কমিউনিটির মানুষ মেনে নিতে পরছে না। আশরাফ আহম্মেদ মিলন বিএএস এর সম্মানিত সদস্য ছিলেন।
বিএএস’র সভাপতি সায়দুল হক (সেন্টু) ও সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূন কবির সংগঠনের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।
অনুষ্ঠানে সংগঠনের সভাপতি জানান, তাদের আপাতত: একটিই উদ্দেশ্য ও ইস্যু রয়েছে সংগঠনের। কমিউনিটির জন্য একটি কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণ করা। অনুষ্ঠান শেষে বৈশাখি মেলার কনভেনর কমরেট রব উপস্থিত সকলকে অংশগ্রহণের জন্য ধন্যবাদজ্ঞাপন করেন।