একের পর এক স্লিপ যাচ্ছিলো মঞ্চে। নানা জন তাদের পছন্দের গান গাওয়ার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছের শিল্পীকে। পেছনকে বেশ করেকজন তো এক সাথে কাগজে স্বাক্ষর করে অনুরোধ পাঠালেন। 

কিন্তু অনুরোধ রাখা কি শিল্পীর পক্ষে সম্ভব? ঘড়ির কাটা বারটা ছুঁই ছুঁই করছে, হল ভর্তি দর্শক। একটার পর একটা গানের অনুরোধ। মন্ত্রমুগ্ধের মতো সবাই অভিভূত হয়ে শুনছেন শিল্পীর গান।  অভূতপূর্ব এই পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছিলো শনিবার রাতে, ১৩ তম টরন্টো বাংলা বইমেলায়। খ্যাতিমান শিল্পী রনি প্রেন্টিস রয় এর একক সঙ্গীতানুষ্ঠান ছিলো বই মেলার আয়োজনের অংশ হিসেবে। সারা দিনের মেলার ক্রান্তি সত্ত্বেও শ্রোতারা অপেক্ষায় ছিলেন রনি প্রেন্টিস রয় এর গান শুনতে। মেলায় আসেননি অথচ রাতে রনি প্রেন্টিস রয় এর গান শুনতে চলে এসেছেন- এমন শ্রোতাও পাওয়া গেছে অনুষ্ঠানে। 
নজরুলের গান দিয়েই শিল্পী রনি প্রেন্টিস রয় তার পরিবেশনা শুরু করেন। তারপর এক এক করে হেমন্ত, মানবেন্দ্র, মান্নাদে, জটিলেশ্বর গেয়ে দর্শককে কিছু সময়ের জন্য সুরের সাগরে  যেনো ডুবিয়ে রাখেন তিনি।