তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান বলেছেন, মিসরের সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসিকে হত্যা করা হয়েছে। মিশরীয় কর্তৃপক্ষ তাকে রক্ষা করতে ব্যর্থ হয়েছে। খবর এএফপির।

বুধবার এরদোগান ইস্তান্বুলের টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক বক্তব্যে বলেন, মুরসি আদালত কক্ষে ২০ মিনিট পড়ে ছিলেন। কর্তৃপক্ষ অপ্রত্যাশিতভাবে তাকে বাঁচাতে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেন, মুরসিকে হত্যা করা হয়েছে, সে স্বাভাবিকভাবে মৃত্যুবরণ করেনি।

মিসরের প্রথম গণতান্ত্রিক প্রেসিডেন্ট এবং বিশিষ্ট মুসলিম ব্রাদার হুডের সদস্য মোহাম্মদ মুরসির সঙ্গে এরদোগানের গভীর সম্পর্ক ছিল।

আব্দেল ফাত্তাহ সিসির নেতৃত্বে সেনাবাহিনী মুরসিকে ২০১৩ সালে ক্ষমতাচ্যুত করে ক্ষমতায় আসলে আঙ্কারার সঙ্গে কায়রোর সম্পর্ক ভেঙে যায়।

মিসরের সেনাবাহিনী ক্ষমতা গ্রহণ করলে এরদোগান পরিষ্কারভাবে নিন্দা জানিয়ে এটিকে অভ্যুত্থান বলে সরাসরি আখ্যায়িত করেন।

তিনি বলেন, মুরসির মৃত্যু বিষয়টি ধারাবাহিকভাবে অনুসরণ করবেন। মিসরের বিচারের জন্য আর্ন্তজাতিক আদালতে যা যা দরকার তা আমরা করব।

মিসরের অ্যাটর্নি জেনারেল অফিস জানিয়েছে, মুরসিকে দ্রুত আদালতে নেয়া হয়েছে। সেখানে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেছেন। এ বক্তব্যটি বিচারিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

মঙ্গলবার মুরসিকে দাফন করা হয়। এদিকে অ্যামেনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও হিউম্যান রাইটস মুরসির মৃত্যুর কারণ স্বাধীনভাবে প্রমাণের আহ্বান জানিয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার সাবেক প্রেসিডেন্ট মুরসির জন্য দোয়া কামনায় এরদোগান ইস্তানম্বুলের মসজিদে অংশগ্রহণ করেন।