গত ৬ জুন ২০১৯ ইকো পার্কে প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে লোটাস ফেস্টিবলের প্রেসিডেন্ট ড. লিও পেনডাক এবং লোটাস ফোস্টিবলের চেয়ারপার্সন ডিয়ান এ ডেডম্যান ঘোষণা দেন যে, আগামী ১৩ ও ১৪ জুলাই ইকো পার্কে ৩৯তম লোটাস ফেস্টিবল অনুষ্ঠিত হবে। এবারের ফেস্টিবলে হোস্ট কান্ট্রি থাকছে থাইল্যান্ড।

প্রেস কনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন, ১৩ ডিস্ট্রিক এর কাউন্সিলমেম্বার মিচ ও ফারেল থাই কন্সাল জেনারেল মুংকোরান পারাটুমকিউ, কমিশন প্রেসিডেন্ট এ্যান্থোনি-পল ডিয়াজ প্রমুখ।

ইকো পার্কে খোলামেলা মঞ্চের আশপাশ থাইল্যান্ডের কালচারাল প্রভাবে পরিবেশষ্টিত ছিল। ট্রেডিশনাল পরিবেশকে মহিত করে তুলেছিল।

লোটাস ফেস্টিবলের ভাইস চেয়ারম্যান এবং কালচারাল চেয়ার বাংলাদেশী আমেরিকান মোহাম্মদ জানান যে, লোটাস ফেস্টিবলে ১২৫ হাজার মানুষের সমাগম হয়। এবারের ফেস্টিবলে বিভিন্ন দেশের ৪০টি সংগঠনের দুদিন ব্যাপী অনুষ্ঠানে ৫০০ শিল্পী অংশগ্রহণ করবে। এবারের ফেস্টিবলে আগামী ১৪ জুলাই ২০১৯ বিকেল ৫টায় বাংলাদেশের এক ঘন্টা ব্যাপী অনুষ্ঠান হবে বলে তিনি জানান।

এহসান লস এঞ্জেলেসের সকল প্রবাসী কমিউনিটিকে উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক দলকে উৎসাহিত করা ও উপস্থিতির মাধ্যমে নিজস্ব কালচারকে লোটাস ফেস্টিবল চত্বরে তুলে ধরার অনুরোধ করেন।

উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে দুবার (২০০৩ ও ২০১৭ সালে) বাংলাদেশও লোটাস ফেস্টিবলের হোস্ট হিসেবে ছিল। লোটাস ফেস্টিবল লস এঞ্জেলেস সিটির একটি বৃহত্তর পাবলিক ইভেন্ট, যার হোস্ট কান্ট্রি হল এশিয়ান এবং প্যাসিফিক আইল্যান্ডার দেশ সমূহ। এবছর ৩৯তম লোটাস ফেস্টিবল উপলক্ষ্যে প্রথমবারের মত ‘লাইটস অব ড্রিমস’ ফেস্টিবল সংযোজন করেছে। ইকোপার্ক লেকে ভাসমান ক্যান্ডেল উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। আগামী ১৩ ও ১৪ জুলাই রাত ৮টায় লেকের ধারে উদ্বোধনীর আয়োজন হবে। যারা অংশগ্রহণে ইচ্ছুক তাদেরকে আগামী ১৩ জুলাই ভাসমান মোমবাতি দুপুর ১২টা থেকে রাত ৮টার মধ্যে সংগ্রহ করতে হবে।