পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ, তার মেয়ে মরিয়ম ও জামাতা মুহাম্মদ সফদার দেশটির দুর্নীতিবিরোধী আদালতের রায় চ্যালেঞ্জ করবেন। দুর্নীতির অভিযোগে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড পাওয়া এই পরিবারের সদস্যরা আজ সোমবার ইসলামাবাদ হাইকোর্টে আপিল করবে।
পাকিস্তানের জবাবদিহি আদালত গত শুক্রবার অভূতপূর্ব এক রায়ে শরিফকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডসহ ১১ বছরের কারাদণ্ড ও ৮০ লাখ ডলার জরিমানা, তাঁর মেয়ে মরিয়মকে সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ডসহ আট বছরের কারাদণ্ড ও ২০ লাখ ডলার জরিমানা এবং মরিয়মের স্বামী সফদারকে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন।
নওয়াজ শরিফের নিয়োগকৃত আইন কর্মকর্তাদের সূত্রগুলো টাইমস অব ইন্ডিয়াকে জানায়, নওয়াজের পরিবার গত ৬ জুলাইয়ের রায়কে ইসলামাবাদ হাইকোর্টে আজ সোমবার চ্যালেঞ্জ জানাবে। পাকিস্তান মুসলিম লীগ (এন) জানিয়েছে, নওয়াজের পরিবারের আইনজীবী খাজা হারিস এরই মধ্যে আপিল আবেদন প্রস্তুত করেছেন। সূত্রগুলো আরো জানায়, বিবাদীপক্ষের আইনজীবীরা নওয়াজ ও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের জানিয়েছেন, তাঁরা যদি আগামী ১০ দিনের মধ্যে দেশে ফিরতে ব্যর্থ হন, তাহলে আদালতের সাজা থেকে মুক্তি পাওয়া তাঁদের জন্য আরো কঠিন হবে।
অন্যদিকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, মরিয়মের স্বামীকে দেশ ত্যাগের নিষেধাজ্ঞা বিষয়ক কালো তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এর ফলে তিনি আকাশ, স্থল বা জলপথে দেশত্যাগ করতে পারবেন না। এরই মধ্যে নওয়াজ শরিফ ও তাঁর মেয়ের জন্য আলাদাভাবে লাহারের কট লাখপত কারাগার ও রাওয়ালপিন্ডির আদিয়ালা কারাগারে বিশেষ প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। যদি তাঁরা লন্ডন থেকে ইসলামাবাদ বিমানবন্দর দিয়ে দেশে আসেন, তাহলে তাঁদের আদিয়ালা কারাগারে নেওয়া হবে। আর তাঁরা যদি লাহারো আসেন, তাহলে তাঁদের কট লাখপত কারাগারে নেওয়া হবে।
সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

Previous post বিশ্ব রেকর্ডের হ্যাটট্রিক করতে ১৪ ঘণ্টা ড্রাম বাজালেন বাংলাদেশি সুদর্শন
Next post জাপানে বন্যা ও ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৯৭
Close