ভারতের ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল কংগ্রেসের সাবেক সভাপতি সোনিয়া গান্ধী বলেছেন যে, ভবিষ্যতে নেহেরু-গান্ধী পরিবারের বাইরে থেকেই কেউ দলটির নেতৃত্বে আসতে পারে। কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড প্রগ্রেসিভ অ্যালায়েন্স (ইউপিএ) পার্টির এক কেন্দ্রীয় সভায় আজ শুক্রবার এমন মন্তব্য করেন সোনিয়া।

কংগ্রেসের ঐতিহ্য অনুযায়ী দলের নেতা কে হবে তা গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতেই নির্ধারিত হয় বলেও ঐ সভায় মন্তব্য করেন বর্তমানে কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধীর মা।

ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়া ট্যুডে’র “গান্ধীয় বংশের বাইরে থেকে আসলেই দলটির নেতৃত্বে কেউ আসবেন কী না?” এমন প্রশ্নের জবাবে সোনিয়া বলেন, “কেন নয়? ভবিষ্যতে এমনটা হতেও পারে”।

“গান্ধী পরিবারের বাইরের কারও নেতৃত্বে কী কংগ্রেস টিকে থাকবে?”- এমন প্রশ্নের জবাবে বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবীদ দলটির অন্য কর্মীদের কাছে এই প্রশ্নের উত্তর খোঁজার পরামর্শ দেন। তিনি বলেন, “এর উত্তর অনেক কঠিন। দলে আরও নেতৃবৃন্দ আছেন। আপনারা তাদেরকে জিজ্ঞেস করুন”।

ইউপিএ’র সভা শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিং করার সময় যুক্তরাষ্ট্রের ‘বুশ পরিবার’, ‘ক্লিনটন পরিবার’সহ ভারতের অভ্যন্তরের বেশক’টি পারিবারিক রাজনৈতিক দলের সূত্র টেনে ‘কংগ্রেস এমন পরিবারতান্ত্রিক দল নয়’ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এদিকে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ ২০০৪ সালে নির্বাচনে জিতলেও সোনিয়ার প্রধানমন্ত্রী না হওয়ার বিতর্কের ইস্যুতে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “আমার সে সময় মনে হয়েছিল যে, ড. মনমোহন সিং আমার থেকেও ভালো একজন প্রধানমন্ত্রী হতে পারবেন। আর তাছাড়া সেসময় কংগ্রেসেও কিছু সংকট চলছিল। আমার মনে হয়েছিল যে, আমার সে সময় দল গোছাতেই নিজেকে যুক্ত রাখা উচিত”।

সূত্র: এনডি টিভি