ভারত-আমেরিকার সাঁড়াশি চাপে তার বিরুদ্ধে সবেমাত্র ছোটখাটো পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছে পাকিস্তান। আর তাতেই যেন গর্জে উঠলেন হাফিজ সাঈদ। তাকে গৃহবন্দি করার জন্য যে সুর এতদিন ভারতের বিরুদ্ধে বাজত, তা আজ বেজে উঠল পাকিস্তানের বিরুদ্ধেই।

তার দাবি করলেন, তাকে গৃহবন্দি রাখার পিছনে কোনও হাতই নেই ভারতের। পাকিস্তান সরকারই তাকে বন্দি করে রেখেছিল। শুক্রবার নাজিরা পাকিস্তানি ট্রাস্টের এক সভায় প্রকাশ্যেই এ কথা বলেন ২৬/১১ মুম্বই হামলার মূল চক্রী এবং লস্কর প্রধান হাফিজ সইদ। পাকিস্তান সরকার কাশ্মীরি মানুষের কথা ভাবছে না বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

সেই সভায় হাফিজ বলেন, ‘‘মোদি সরকার নয়, আমাদের পাক সরকারই আমাকে ১০ মাস গৃহবন্দি করে রেখেছিল। তারা চায় না আমি কাশ্মীরের মানুষের জন্য লড়াই করি। কাশ্মীরি মানুষের আত্মত্যাগকে তারা অবমাননা করছে। কাশ্মীরিদের সমস্যা নিয়ে সরব হচ্ছি বলে পাক সংবাদমাধ্যমও আমাকে জঙ্গি বলেছে, এতে আমি ভীষণ আঘাত পেয়েছি।”

উল্লেখ্য, ভারত-আমেরিকার প্রবল চাপ সত্ত্বেও হাফিজ সাইদের বিরুদ্ধে তেমন কোনও ব্যবস্থা নেয়নি পাকিস্তান সরকার। উপরন্তু বরাবরই তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করে গেছে। সম্প্রতি সে দৃশ্যের খানিকটা রদবদল হয়েছে। মার্কিন চাপের ফলে হাফিজের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করতে বাধ্য হয়েছে পাক সরকার।