গোপন নথি ফাঁস করে মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইয়ের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ তুলেছে ট্রাম্প প্রশাসন।

শুক্রবার মার্কিন কংগ্র্রেস প্রকাশিত এফবিআই’র ৪ পৃষ্ঠার টপ সিক্রেট নথিতে বলা হয়েছে, ডেমোক্রেটিক পার্টির অর্থায়নে পরিচালিত একটি গবেষণায় পাওয়া অপ্রমাণিত ফলাফল ব্যবহার করে একটি পরোয়ানা পাওয়ার চেষ্টা করছিল এফবিআই। ওই পরোয়ানার জোরে সংস্থাটি ট্রাম্পের উপদেষ্টা কার্টার পেজের ওপর নজরদারি করতে চেয়েছিল।

ট্রাম্পের এই উপদেষ্টার বিরুদ্ধে রাশিয়ার সঙ্গে যোগাযোগের অভিযোগ রয়েছে।

নথিটি প্রকাশের পর এফবিআইয়ের আচরণকে ‘ভয়ানক’ ও ‘অসম্মানজনক’ বলেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে এফবিআইয়ের অভিযোগ, প্রকাশিত নথিটি সম্পূর্ণ নয়। গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য বাদ রেখেই নথিটি প্রকাশ করা হয়েছে।

অবশ্য সিনিয়র ডেমোক্র্যাটরা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে সতর্ক করে বলেছেন, শুধু একটা বিতর্কিত নথি বা মেমোকে ‘প্রেক্ষাপট’ হিসেবে ধরে মার্কিন নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপ তদন্তকারী বিশেষ কাউন্সেল রবার্ট মুয়েলারকে বরখাস্ত করা ঠিক হবে না। তাদের মতে, এর ফলে নিক্সন যুগের মতো ভয়াবহ এক সাংবিধানিক সংকটের মুখে পড়বে যুক্তরাষ্ট্র।