মানবিক কারণ উল্লেখ করে প্রায় সাত হাজার সিরীয়কে যুক্তরাষ্ট্রে অস্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন।

যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়া থেকে যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় নেওয়া এসব শরাণার্থীকে মানবিক বিবেচনায় থাকতে দেওয়া হচ্ছে বলে জানানো হয়। তবে সম্প্রতি অফ্রিকান ইউনিয়নের দেশ নিয়ে কটূক্তি করার পর থেকে অভিবাসীদের নিয়ে সব অনুষ্ঠান বাতিল করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ট্রাম্প প্রশাসন দাবি করেছে, মানবিক কর্মসূচি ‘টেম্পোরারি প্রটেকটেড স্ট্যাটাস’ (টিপিএস) এর আওতায় অভিবাসনের সুযোগ পেয়েছে ওই সিরীয়রা। তবে নতুন করে আর কোনো সিরীয়কে এই সুযোগ দেয়া হবে না।

দেশটির অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তায় নিয়োজিত কর্মকর্তার বরাতে বিবিসি এক প্রতিবেদনে বলেছে, সিরিয়ায় যে অস্থিরতা চলছে তার ওপর ভিত্তি করে এসব সিরীয় নাগরিককে বসবাসের বিষয়টি বিবেচনা করা হয়েছে। তবে আমরা প্রতিটি দেশের টিপিএস অনুযায়ী বসবাসের বিষয়টি চলমান থাকবে।

ওই কর্মকর্তা আরো জানান, এরই মধ্যে যেসব সিরীয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছে, তাদের মেয়াদ আরো ১৮ মাস বাড়ানো হবে। তবে ২০১৬ সালের আগে যারা এসেছে, তাদের কেউ কোনো আইনভঙ্গ করলে তাদের জন্য সময় বাড়ানো হবে না।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Previous post শুভ্রা থেকে চন্দ্রাবতী পরী
Next post ফিদেল কাস্ত্রোর বড় ছেলের আত্মহত্যা
Close