ভিয়েতনামের হ্যানয়ে বাংলাদেশ দূতাবাস যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস এবং মুজিববর্ষ পালন করেছে।

রবিবার স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির মাধ্যমে দিবসটি পালন করে বাংলাদেশ দূতাবাস। এ উপলক্ষে রাষ্ট্রদূত মিজ সামিনা নাজ চ্যান্সারী ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে দিবসটির সূচনা করেন।

রাষ্ট্রদূত দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে এক আলোচনার সূত্রপাত করেন।
বক্তব্যের শুরুতে বাংলাদেশের ইতিহাসে দিবসটির তাৎপর্য এবং বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর অবিসংবাদিত নেতৃত্বের কথা তিনি শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন।

তিনি বলেন, জাতির পিতা পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে বাঙালি জাতির মুক্তির জন্য দীর্ঘ ২৪ বছর সংগ্রাম করেছেন। ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে স্বাধীনতা সংগ্রাম সকল ক্ষেত্রেই তিনি নেতৃত্ব দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের যে অভাবনীয় সাফল্য অর্জিত হয়েছে, রাষ্ট্রদূত তার বক্তব্যে সেই বিষয়গুলো আলোকপাত করেন।

রাষ্ট্রদূত নিজে রক্তদানের মাধ্যমে এই কর্মসূচির সূচনা করেন। দূতাবাসের কর্মচারী ও ভিয়েতনামের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা স্বেচ্ছায় এই রক্তদান কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন।

আয়োজিত অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূতকে ভিয়েতনামের মিলিটারি হাসপাতালের উপ-পরিচালক বিশেষ ধন্যবাদ ও সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, রক্তদান একটি মহৎ মানবিক কাজ। এ কাজে এগিয়ে আসার জন্য বাংলাদেশ-ভিয়েতনাম বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক যেমন আরো গভীর হবে, তেমনি স্বেচ্ছায় সংগৃহীত রক্ত অনেক পীড়িত ও অসহায় মানুষকে সহায়তা করবে।