বয়স্কদের জন্য আশার আলো দেখাচ্ছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের করোনার টিকা। ৬০ থেকে ৭০ বছরের ব্যক্তিদের কোভিড-১৯ প্রতিরোধে এর কার্যকারিতা দেখা গেছে।

বৃহস্পতিবার ল্যানসেট চিকিৎসা সাময়ীকিতে প্রকাশিক একটি প্রাথমিক গবেষণাপত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এতে বলা হয়েছে, সাম্প্রতিক মাসগুলোতে প্রকাশিত প্রাথমিক তথ্যে দেখা গেছে পরীক্ষামূলকভাবে টিকার যেসব ডোজ দেওয়া হয়েছে সেগুলো বয়স্কদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক বেশি বাড়াতে সক্ষম। এই বয়স্করা করোনার কারণে তীব্র সুস্থতার ঝুঁকিতে ছিলেন।

দ্বিতীয় ধাপের ট্রায়ালে দেখা গেছে, বয়স্কদের পাশাপাশি কিশোর ও তরুণদের মধ্যেও একই ধরনের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করতে সক্ষম টিকা। দ্বিতীয় ধাপে মোট ৫৬০ জন প্রাপ্তবয়স্ক স্বেচ্ছাসেবীর দেহে এই টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হয়। তাতেই এই ফলাফল দেখা গেছে।

গত মাসে বয়স্ক স্বেচ্ছাসেবকদের প্রকাশিত তথ্য প্রকাশ করা হয়। এর আগে জুলাইয়ে প্রকাশ করা হয়েছিল ১৮ থেকে ৫৫ বছর বয়সী স্বেচ্ছাসেবকদের তথ্য। ওই সময় ১৮ থেকে ৫৫ বছর বয়সীদের টিকা গ্রহণের পর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক বেশি বাড়ার প্রমাণ পাওয়া যায়।

গবেষকেরা বলছেন, তৃতীয় ধাপে অক্সফোর্ডের টিকা আরও বড় পরিসরে এবং আরও বেশি মানুষের দেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হচ্ছে।

অক্সফোর্ড ভ্যাকসিন গ্রুপের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, এই টিকা রোগের বেড়ে যাওয়া থামাতে পারবে কি না, তা জানা যাবে খ্রিষ্টানদের ধর্মীয় উৎসব বড়দিনের (২৫ ডিসম্বের) মধ্যেই।
ভ্যাকসিন গ্রুপের পরিচালক অ্যান্ড্রু পোলার্ড বলেন, ‘আমাদের টিকা রোগের বেড়ে ওঠা থামাতে পারবে কি না, সেই তথ্য দেওয়ার মতো অবস্থা এখনো আসেনি। এ বিষয়ে তাড়াহুড়াও করা যাবে না। তবে আমরা বেশ কাছাকাছি চলে গেছি এবং অবশ্যই এ ব্যাপারে বড়দিনের আগেই জানা যাবে।’