যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট দিতে পারবেন না ৫২ লাখ ভোটার। ক্রিমিনাল রেকর্ড তথা অপরাধ খতিয়ানের কারণে নভেম্বরের এই নির্বাচনে ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত হবেন তারা।

এতে শ্বেতাঙ্গ নাগরিকদের চেয়ে কৃষ্ণাঙ্গ নাগরিকরাই বেশি বঞ্চিত হচ্ছেন। ২০১৬ সালে ভোট দিতে না পারা ব্যক্তিদের সংখ্যা আরও বেশি ছিল। সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের ভোটাধিকার সুরক্ষার উদ্যোগের ফলে গতবারের চেয়ে এবার এ সংখ্যা অন্তত ১৫ শতাংশ কমেছে। ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট দিতে পারেননি প্রায় ৬১ লাখ ভোটার।

আইন পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ‘সেনটেন্সিং প্রজেক্ট’র নতুন এক রিপোর্টে এ তথ্য উঠে এসেছে। সম্প্রতি এই রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়।
এদিকে, শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, ‘নির্বাচনে যদি পরাজিত হই তাহলে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করব।’

জাল ভোট নিয়ে তিনি শঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, ‘নির্বাচন অবশ্যই সুষ্ঠু হতে হবে। সঠিকভাবে ভোট গণনা করতে হবে। আমি চাই নির্বাচন সুষ্ঠু হোক।’