আহমেদ ফয়সাল(ক্যালিফোর্নিয়া), যুক্তরাষ্ট্র।।
নারীর প্রতি সহিংসতা ও ধর্ষণের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের লস এঞ্জেলেসে এক মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। লস এঞ্জেলেসের লিটল বাংলাদেশে ‘রাইটার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ, ক্যালিফোর্নিয়া’র উদ্যোগে উক্ত অনুষ্ঠানে দল ও মত নির্বিশেষে কমিউনিটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ যোগদান করেন।

এসময় বক্তাগণ দেশে উত্তরোত্তর নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ বৃদ্ধি পাওয়ায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র নিন্দা প্রকাশ করেন। বক্তাগণ ধর্ষণ ও সেক্সুয়াল হ্যারাসমেন্ট বন্ধে কঠোর আইন প্রনয়নের দাবী জানান। সিলেট ও নোয়াখালীর ঘটনার অপরাধীদের দ্রুত সময়ে গ্রেফতার করতে সক্ষম হওয়ায় অনেকেই প্রশাসনের প্রতি সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং ধন্যবাদ জানান।

লিটল বাংলাদেশ প্রেসক্লাব অব লস এঞ্জেলেসের প্রেসিডেন্ট, রামপার্ট ভিলেইজ নেইবারহুড কাউন্সিল মেম্বার কাজী মাশহুরুল হুদার সঞ্চালনায় উক্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট কমিউনিটি লিডার মোমিনুল হক বাচ্চু, শামীম আহাম্মেদ, সাবেক ক্যালিফোর্নিয়া আওয়ামী লীগের প্রেসিডেন্ট ও কমিউনিটি এক্টিভিস্ট সোহেল রহমান বাদল, কমিউনিটি লিডার ও মুনা লস এঞ্জেলেস চ্যাপ্টার প্রেসিডেন্ট আব্দুল মান্নান, নারী সংগঠক ও কমিউনিটি এক্টিভিস্ট ড্যানি তাইয়্যেব, ক্যালিফোর্নিয়া বিএনপির প্রেসিডেন্ট ও কমিউনিটি লিডার মোঃ বদরুল চৌধুরী শীপ্লু, সেক্রেটারি এম ওয়াহিদ রহমান, সাবেক প্রেসিডেন্ট আব্দুল বাসিত, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মাহাবুবুর রহমান শাহীন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক হাওলাদার, জয়েন সেক্রেটারি অধ্যাপক এম শাহাদাৎ হোসেন শাহীন, ভাইস প্রেসিডেন্ট আফজাল হোসাইন, ক্যালিফোর্নিয়া আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা ও কমিউনিটি এক্টিভিস্ট ফিরোজ আলম, সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী আহমেদ ফয়সাল, এটর্নি সাব্বির আহমেদ প্রমুখ।

বক্তাগণ বলেন, দেশে দিন দিন এমন এমন চরম অমানবিক অপরাধ বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা আইয়ামে জাহেলিয়াতকেও হার মানিয়ে দিচ্ছে। যেদেশে একজন নারী রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত, সেদেশে কেন দিনকে দিন নারীর প্রতি সহিংসতা বৃদ্ধি পাবে? স্বাধীনতার অর্ধশতাব্দী পরেও সেদেশে কেন মা বোনরা ধর্ষিত হবে। ৯০% মুসলমানের দেশে কেন নারীরা নিরাপদে নির্বিঘ্নে চলাচল করতে পারবেনা? এইসকল অপরাধের মূল কারণ হলো দেশের গনতন্ত্রহীনতা ও অসুস্থ রাজনীতি। তাই অবিলম্বে দেশে সুস্থ রাজনীতি ও রাষ্ট্রীয় শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার দাবি জানান।

বক্তাগণ বলেন, ধর্ষকের পরিচয় একটাই, ওরা ধর্ষক। ওরা কোনো দলের নয়। ওদেরকে দ্রুত বিচারের আওতায় এনে বিচার করতে হবে। কোন ভাবেই যেন আইনের ফাঁক গলিয়ে অপরাধীরা যেন পাড় পেয়ে না যায়, সেইদিকে সরকারের কঠোর নজর দিতে হবে।

বক্তাগণ রাইটার্স এসোসিয়েশনকে অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।