Read Time:7 Minute, 39 Second

বর্ণাঢ্য আয়োজনে ‘বাংলাদেশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশন অব নর্থ আমেরিকা’ সংক্ষেপে ‘বিমানা’র ৩৮ তম বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলো যুক্তরাষ্ট্রের লুইজিয়ানা অঙ্গরাজ্যের ঐতিহাসিক নিউ অরলিন্স শহরে। নিজ নিজ অবস্থান থেকে প্রিয় মাতৃভূমির সামগ্রিক কল্যাণে কাজের অঙ্গিকার করা হয় এ সম্মেলনে। বিশেষ করে বাংলাদেশের চিকিৎসা-ব্যবস্থার উন্নয়নে সাধ্যমত সহায়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন সকলে।
সেন্ট্রাল ‘বিএমএএনএ’র এর উদ্যোগে এবং আলাবামা-লুইজিয়ানা-মিসিসিপি এই তিন অঙ্গরাজ্যের সমন্বয়ে ৩ দিনের এই বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে বিভিন্ন অঙ্গরাজ্য থেকে বাংলাদেশি-আমেরিকান চিকিৎসকরা যোগদান করেন। সম্মেলনের জন্যে গঠিত ‘ওয়েলকাম কমিটি’র পক্ষ থেকে চেয়ারম্যান ড. দেওয়ান মজিদ, প্রোগ্রাম ডিরেক্টর ডা. পারভেজ করিম, কো-অর্ডিনেটর ডা. জামাল উদ্দিন এবং কমিউনিকেশন ডিরেক্টর ড. রিয়াজ ফেরদৌস শিবলীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে এই কনভেনশন এক পর্যায়ে মিলনমেলায় পরিণত হয়।
চিকিৎসাবিজ্ঞান বিষয়ক সেমিনার, সিম্পোজিয়াম, আলোচনা, পোস্টার প্রদর্শনীর পাশাপাশি সমৃদ্ধ ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, রাইটার্স কর্নার, বুক সাইনিং, আলোকচিত্র প্রদর্শনী ও মীনাবাজারের আয়োজন করা হয়।
এছাড়া ৩৮ তম কনভেনশন উপলক্ষে প্রকাশিত হয় চমৎকার প্রচ্ছদের ম্যাগাজিন। ৯২ পৃষ্ঠার চার রঙা চমৎকার বাঁধাইয়ের এই ম্যাগাজিনের এডিটোরিয়াল বোর্ডে ছিলেন ড. বাশার এম আতিকুজ্জামান, ড. বেলায়েত হোসেন এবং ড. রিয়াজ ফেরদৌস শিবলী।
ফিজিশিয়ান ও তাদের ফ্যামিলির মধ্যে যারা লেখক, কবি ও প্রাবন্ধিক রয়েছেন এবং বই প্রকাশিত হয়েছে, তাদের জন্যে আলাদাভাবে রাখা হয়েছিলো রাইটার্স কর্নার, বুক সাইনিং ইভেন্ট এবং প্রকাশিত বইয়ের প্রদর্শন।
এই এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ড. রিয়াজ চৌধুরী আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।
ড. দেওয়ান মজিদের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত মেডিক্যাল বিষয়ক সেমিনার , আলোচনা ও পোস্টার প্রদর্শনী ছিলো খুবই সমৃদ্ধ।
উল্লেখ্য, এবারই প্রথম ইয়ং ফিজিশিয়ান্স সিম্পোজিয়াম’রও আয়োজন করা হয়। এতে অংশ নেয়া বিপুলসংখ্যক দেশী এবং বিদেশী বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকগণ চিকিৎসা ক্ষেত্রের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ও চলমান বিষয়ে তাৎপর্যপূর্ণ বক্তব্য রাখেন।

উদ্বোধনী রাতে বাংলাদেশি-আমেরিকান ডাক্তার ও তাদের পরিবারের অংশগ্রহণে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। উপস্থাপনায় ছিলেন ডা. শাবানা করিম ও ডা. ইফতেখার উল্লাহ। স্বাগতিক লুইজিয়ানা, আলাবামা ও মিসিসিপির পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা বক্তব্য শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। দেশাত্ববোধক গান, আবৃত্তি, নাচ, বাঁশির সুর এবং গীতিনাট্য শ্রোতাদের মুগ্ধ করে। এরপর নিউইয়র্ক, মিশিগান, ফ্লোরিডা, ক্যালিফোর্নিয়া, টেক্সাস, জর্জিয়া, মিড আটলান্টিক, টেনেসি, ভার্জিনিয়া ও ম্যাসাচুসেটস সহ বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের ডাক্তাররা পর্যায়ক্রমে তাদের অপূর্ব পরিবেশনা নিয়ে হাজির হন।
এ সম্মেলনের অন্যতম আকর্ষণ ছিলো একটি স্বল্পদৈর্ঘ ছবি ‘স্বপ্নের দিনগুলো’। ডা. ইফতেখার উল্লাহর রচনা এবং পরিচালনায় নির্মিত এই ছবিতে অভিনয় করেন মিসিসিপি রাজ্যের চিকিৎসকগণ।
কনভেনশনের সমাপনী রাতে নৈশভোজে প্রধান অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া।
এবারের সম্মেলনে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের জন্যে ৬ জনকে এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। এরা হলেন ডা. আব্দুল হাফিজ, ডা. মোহাম্মদ এ সিদ্দিকী, ডা. এম মোফাখকারুল ইসলাম, ডা. ইফতেখার মাহমুদ, ডা. কনককান্তি বড়ুয়া এবং ড. মুহম্মদ সাদুজ্জামান।
এছাড়া হোস্ট অঙ্গরাজ্যের পক্ষ থেকে উদ্বোধনী রাতে বিশেষ ‘সম্মাননা’ প্রদান করা হয় অভিবাসী-বাংলাদেশিদের মধ্যে প্রথম প্রেস্টিজিয়াস ‘এলিস আইল্যান্ড অব অনর এওয়ার্ড’ অর্জনকারী ডা. জিয়াউদ্দিন আহমেদকে। ‘বিমানা-লুইজিয়ানা চ্যাপ্টার’ এর ফাউন্ডিং প্রেসিডেন্ট ড. দেওয়ান মজিদ এটি প্রদান করেন বিপুল করতালির মধ্যে।
নৈশভোজের পর গানের মূর্চ্ছনায় সবাইকে মাতিয়ে তোলেন কণ্ঠশিল্পী কনক চাঁপা, তনিমা হাদী এবং বাদশা বুলবুল। অনুষ্ঠানে ব্যান্ডসঙ্গীত পরিবেশন করেন টেক্সাস অঙ্গরাজ্য থেকে আসা ‘কারমিক এন্থেম’ ব্যান্ড। মধ্যরাত পর্যন্ত দর্শকবৃন্দ এই মনোরম সঙ্গীতানুষ্ঠান উপভোগ করেন।
সার্বিক যোগাযোগ ও অনুষ্ঠান সমন্বয়ের দায়িত্বে থাকা ড. রিয়াজ ফেরদৌস শিবলীর তত্ত্বাবধানে লুইজিয়ানা স্টেট ইউনিভার্সিটির একদল উচ্ছল তরুণ-তরুণী স্বেচ্ছাসেবক দল কনভেনশনের জন্যে একটি বিশাল ও আকর্ষণীয় মঞ্চ নির্মাণ করে উপস্থিত সকলের দৃষ্টি কাড়েন। অনেকেই বলেন, বিমানা কনভেনশনের ইতিহাসে এটিই সর্বাপেক্ষা সুন্দর ও শৈল্পিক স্টেজ।
সামনের বছরের ৩৯তম সম্মেলন মিশিগান অঙ্গরাজ্যে আয়োজনের ঘোষণার মধ্য দিয়ে এই সম্মেলন তথা বাংলাদেশি ডাক্তারদের মিলনমেলার পরিসমাপ্তি ঘটে।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %
Previous post স্পেনে শোক দিবস পালিত
Next post সৌদি আরবে এক বাংলাদেশি পরিবারের ৪ সদস্য নিহত
Close