বাংলাদেশ সরকারের সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী ডাঃ দিপু মনি এমপি উনিভার্সিটি অব ক্যালিফোনিয়া বার্কলির আমন্ত্রণে ঘুরে গেলেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে। গত ১৯’শে জুলাই বার্কলি ইউনিভার্সিটিতে তিনি রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে একটি সেমিনারে যোগ দেন। সেমিনারে তিনি রোহিঙ্গা ইস্যুতে মাইয়ারের বিরুদ্ধে প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ এবং রোহিঙ্গা প্রত্যাবসনে ধীর গতির অভিযোগ তুলেন।

১৯ তারিখের সেমিনার শেষ করে ২০ তারিখে তিনি সড়ক পথে সানফ্রান্সিসকো থেকে লস এঞ্জেলেসে আসেন, ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট আওয়ামী লীগের সংবর্ধনা ও মতবিনিময় সভায় যোগ দিতে। স্টেট আওয়ামী লীগের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া ছাড়াও তিনি ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট সেচ্ছাসেবকলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে ২০ মিনিট সময় দেবার প্রতিশ্রুতি দেন।

সানফ্রান্সিসকো থেকে সড়ক পথে লস এঞ্জেলেসে ফেরার সময় ডাঃ দিপু মনি যানজটে পড়ে নির্ধারিত সময়ের প্রায় তিন ঘন্টা পর লস এঞ্জেলেস পৌছান। প্রধান অতিথির বিলম্বের কারণে আয়োজকরা একধরণের হতাশায় পড়েন। ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট আওয়ামী লীগের অনুষ্ঠানে তিনি ছাড়াও সাবেক কংগ্রেসম্যান জিম রিচার্ড উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বিলম্বের কারণে আওয়ামী লীগ এবং সেচ্ছাসেবকলীগের দুটো অনুষ্ঠানটিই বিশৃঙ্খলার মধ্য পড়ে যায়। রাত ৯’টা পঞ্চাশে সেচ্ছাসেবকলীগের অনুষ্ঠানে পৌঁছে তড়িঘড়ি কেক কেটে তিনি ছুটে যান মূল অনুষ্ঠানে। আওয়ামী লীগের অনুষ্ঠানটি ছিল ৭টা থেকে এগারোটা পর্যন্ত। প্রধান অতিথি সাড়ে দশটায় অনুষ্ঠান স্থলে পৌছালে আয়োজকরা অনুষ্ঠান সংক্ষিপ্ত করতে বাধ্য হন। আমেরিকা ও বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু করে নৃত্যের তালে তালে ফুলদিয়ে প্রধান অতিথিকে বরণ করে নেওয়া হয়। ক্যালিফোর্নিয়া আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাঃ রবি আলমের স্বাগত বক্তব্য এবং বিশেষ অতিথি জিম  রিচার্ডের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের পর প্রধান অতিথি বক্তব্য দেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডাঃ দিপু মনি গত দশ বছরের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরে আগামী দিনে শেখ হাসিনার সরকারকে দেশ পরিচালনার সুযোগ দিতে প্রবাসীদের সাহায্যের আহব্বান জানান। প্রধান অতিথির বক্তব্যের পরপরই স্টেট আওয়ামী লীগ সভাপতি শফিকুর রহমান সমাপনী বক্তব্য দিয়ে অনুষ্ঠান শেষ করেন।

এ ছাড়াও গত ১৮ জুলাই লস এঞ্জেলেস্থ বাংলাদেশ কনসাল জেনারের বাসভবনে ডাঃ দিপু মনির সম্মানে নৈশ ভোজের আয়োজন করা হয়। সেখানে আওয়ামী লীগের নেতৃস্থানীয়রা উপস্থিত ছিলেন।

২০ তারিখ রাতে ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট আওয়ামী লীগ ডাঃ দিপু মনির সম্মানে নৈশ ভোজের স্বজন করেন ।নৈশভোজে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী ছাড়াও প্রেসক্লাবের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ডিনার শেষে ঘরোয়া পরিবেশে ডাঃ দিপু মনি দলীয় কোন্দল নিয়ে খোলামেলা আলোচনা করেন।

আলোচনায় অংশ নেন মুস্তাইন দারা বিল্লাহ, শফিকুর রহমান, আলী আহমেদ ফারিস টি জাহান কাজল ও সাবেক ছাত্রনেতা ফিরোজ আলম।

আলোচনার একপর্যায়ে তিনি বলেন দলীয় গ্রূপ যাই থাকুকনা কেন সবাই আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক, আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা। দলের কারোর সাথে বসতে তার অসুবিধা নেই, তবে কেন্দ্রের অনুমোদিত কমিটিকে তার প্রাধান্য দিতে হবে। ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট আওয়ামী লীগকে তিনি যুবলীগের কোন্দল মেটাতে পরামর্শ দেন। প্রয়োজনে কনসাল জেনারেলের সহযোগিতা নিতে বলেন। সেচ্ছাসেবকলীগ যেহেতু কেন্দ্র অনুমোদিত, সেহেতু স্টেট আওয়ামী লীগকে তিনি তাদেরকে নিয়ে কাজ করতে বলেন।

এদিকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ক্যালিফোর্নিয়া (তুহিন ) এবং যুবলীগ (তাপস নন্দী ) কোনো প্রকার সময় না পাওয়াতে অনলাইন অফলাইনে ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। কনসাল জেনারেলের বাসায় দাওয়াত না পাওয়াতেও তারা ক্ষুব্ধ।

তবে কনসাল জেনারেলের সূত্র বলছে, ‘তুহিনকে দাওয়াত দেওয়া হয়েছিল এবং ডাঃ দিপু মনি তাদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতেও রাজি ছিলেন।’

আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের এই অংশটি অনলাইলে ডাঃ দিপু মনি ও কনসাল জেনারেলের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক শিষ্টাচার বহির্ভুত মন্তব্য করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

ডাঃ দিপু মনির সফর নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের অনলাইন প্রতিক্রিয়াকে রাজনৈতিক বোদ্ধারা জয়-পরাজয়ের হিসাব নিকাশের বহিঃপ্রকাশ বলে মন্তব্য করছে।