চৌধুরী আলম :

গত রবিবার ক্যালিফোর্নিয়া যুবলীগের যে সম্মেলন হয়ে গেলো,সেটাকে সম্মেলন পূর্ব প্রচারে অনলাইনে ডামাডোল পিটিয়ে বারবার ঐতিহাসিক বলার চেষ্টা করা হয়েছে । এই সম্মেলন কি আসলেই ঐতিহাসিক ছিল ? হ্যা ! আমার দৃষ্টিতে ঐতিহাসিক ছিল । কেন ঐতিহাসিক মনে হলো আমার ? এই সম্মেলন ঘিরে ব্যতিক্রম কিছু ঘটনা ঘটেছে । সেগুলোকে অবশ্যই ঐতিহাসিক বলা যায় ! সহযোগী এই সংগঠনের সম্মেলনে মূল সংগঠনের শীর্ষ নেতৃত্বের সমর্থন এবং উপস্তিতি ছিলনা । পুরো অনুষ্ঠানটির সমন্বয়ক ছিল কমিউনিটিতে সর্বজন স্বীকৃত বঙ্গবন্ধুর খুনি মহিউদ্দিনের আইনি সহায়তাকারী । উপস্থিত ছিল খালেদা জিয়া প্রেফতার পরবর্তী লসএঞ্জেলেসে প্রথম প্রতিবাদকারী । উপস্থিত ছিল যুদ্ধপরাধী কামরুজ্জামানের অভ্যর্থনাককারী । রাজাকার কামারুজ্জানের সাথে এই ব্যক্তির ছবি কমিউনিটিতে আলোচনার খোরাক ছিল দীর্ঘদিন । আরো ঐতিহাসিক হলো,” শেখ হাসিনা সরকারের মেগা প্রজেক্ট রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র বিরোধী আন্দোলনের নেতৃত্বদানকারী এই যুবলীগের নেতৃত্ব পেয়েছে ।” আরো ঐতিহাসিক ঘটনা হলো একটি আহব্বায়ক কমিটি সংগঠনের গঠনতন্ত্র ধর্ষণ করে আরো একটি অবৈধ বিকলাঙ্গ যুবলীগের জন্ম দিয়ে গেলো । এটা যুবলীগের ইতিহাসে বিরল । শুরুতে ক্যালিফোর্নিয়াতে তিনটি আহব্বায়ক কমিটি করলেও কর্মীর অভাবে ভ্যালি যুবলীগ পরিত্যক্ত করতে বাধ্য হয়েছে । আওয়ামিলীগ ভ্যালি শাখার সভাপতিকে যুবলীগের সভাপতি করে একটা ইতিহাস সৃষ্টি করা হয়েছে । আর এই সমস্ত ঐতিহাসিক ঘটনাকে ঐতিহাসিক কভারেজ দিয়েছে হো……..লি…..উড বাংলা টিভির ? এক অটিস্টিক রিপোর্টার । ঐতিহাসিক সম্মেলনেই বটে ।