বিচার বিভাগ ও সেনা হস্তক্ষেপের কারণে পাকিস্তানে গণতন্ত্র বারবার মুখ থুবড়ে পড়েছে। দেশটির ৭১ বছরের ইতিহাসে কোনো ব্যক্তিই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার মেয়াদ পূরণ করতে পারেননি। এর আগেই ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়াতে হয়েছে। তবে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে এবার ইমরান খান নির্বাচিত হলে, দেশটিতে নয়া সকাল জাগবে বলে মন্তব্য করেছেন তেহরিক-ই প্রধান ইমরান খান।

পাকিস্তানি গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, আগামী ২৫ জুলাই পাকিস্তানে পার্লামেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। শনিবার দেশটির প্রেসিডেন্ট মামনুন হোসেন নির্বাচন কমিশনের প্রস্তাব বিবেচনা করে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য এ তারিখটি অনুমোদন করেন। দেশটিতে একই দিনে জাতীয় এবং প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

খবরে বলা হয়, সম্প্রতি নির্বাচন কমিশন ২৫ জুলাই থেকে ২৭ জুলাইয়ের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্টের কাছে প্রস্তাব পাঠায়। আগামী ৩১ মে জাতীয় পরিষদ এবং পাঞ্জাবের প্রাদেশিক পরিষদের সরকারের পাঁচ বছর মেয়াদ পূর্ণ হবে। এরপর তত্ত্বাবধায়ক সরকার সাময়িক সময়ের জন্য দেশ পরিচালনা ও নির্বাচন আয়োজনের দায়িত্ব নেবে। তবে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শহিদ খাকান আব্বাসি ও বিরোধী নেতা খুরশিদ শাহর মধ্যে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রী কে হবেন তা এখনো ঠিক হয়নি।

এদিকে বিশ্বকাপজয়ী সাবেক ক্রিকেটার ও তেহরিক-ই-ইনসাফ প্রধান ইমরান খান পাকিস্তানে ‘নয়া সকাল’ দেখাবেন বলে মাঠে নেমেছেন। ইমরান খান রোববার আসন্ন সাধারণ নির্বাচনে দেশের দুর্নীতিবাজ শাসকদের পতন ঘটানোর শপথ নিয়েছেন। দুর্নীতির অভিযোগে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ ক্ষমতাচ্যুত ও পরে আজীবন রাজনীতি থেকে নিষিদ্ধ হওয়ার পর ইমরান খানের জয়ের সম্ভাবনা দেখা দিচ্ছে। দেশটির ১৬তম প্রধানমন্ত্রী হওয়ার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন ইমরান খান।

দুর্নীতির অভিযোগে সুপ্রিমকোর্টের রায়ে নওয়াজ ক্ষমতাচ্যুত ও পরে আজীবন রাজনীতি থেকে নিষিদ্ধ হওয়ার পর থেকে রাজনৈতিক অঙ্গনে উত্তেজনা বেড়েই যাচ্ছে। আসন্ন নির্বাচন নতুন করে উত্তাপ ছড়াচ্ছে। এ ছাড়া তালেবানে ইস্যুতে মার্কিনিদের সঙ্গেও দূরত্ব বেড়েছে পাকিস্তানের। ভারতের সঙ্গে দেশটির সম্পর্ক তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। প্রায়ই দেশ দুটোর মধ্যে সহিংসতার ঘটনা ঘটছে। এমন অবস্থায় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেশটির দায়িত্ব নিতে পারলে, সেখানে নয়া ভোর দেখাবেন, এমন আশাবাদ প্রকাশ করেছেন সাবেক এই ক্রিকেটার।

সূত্র: দ্য ডন