আগামী ১৯ জুন লিটল বাংলাদেশ নেবারহুড কাউন্সিলের হ্যাঁ/না নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রবাসী বাংলাদেশীদের মধ্যে সাড়া জেগে উঠেছে। ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া ও ব্যাক্তিগত প্রচারণায় সচেতনতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে হাতে রয়েছে স্বল্প সময়। ইতিমধ্যে কোরিয়ান কমিউনিটি ডাকযোগে প্রায় চার হাজারের অধিক ‘না’ ভোট সংগ্রহ করেছে। এই দিক থেকে ‘হ্যা’ ভোট বিপুল পরিমানে পিছিয়ে আছে।

কোরিয়ান কমিউনিটির প্রায় ৩০০ জন ভলেনটিয়ার চার্চ সহ বিভিন্ন স্টোরগুলোতে প্রচারণা শুরু করেছে। বাংলাদেশ কমিউনিটি স্টোর বা প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে প্রত্যায়ন পত্র সরবরাহ করা শুরু হয়েছে। একই সঙ্গে ভোটারদেরকে সংগ্রহ করার জন্য অনুরোধ জানান হয়েছে। ইসলামিক সেন্টারে তারাবির নামাজের পর প্রচারণার ব্যবস্থা করা হয়েছে। বাংলাদেশী কমিউনিটির মসজিদগুলোতে প্রচারণার জন্য ভলেনটিয়ার প্রয়োজন বলে জানা গেছে। ইতিমধ্যে কমিউনিটি টিম ভলেনটিয়ারের জন্য আহ্বান জানিয়েছে। ডাক যোগে ভোট দেওয়ার মাত্র ১১/১২ দিন বাকি এবং ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেওয়ার সময় ২৪/২৫ দিন মাত্র। কমিউনিটির টিম ১০,০০০ ভোট সংগ্রহের জন্য ব্যাপক প্রচারণা শুরু করেছে। বিভিন্ন এলাকায় ভলেনটিয়ার নিয়োগের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ মমিনুল হক বাচ্চু, মুজিব সিদ্দিকী, মারুফ ইসলাম, জেরিন ইসলাম।

মুনার নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন তারা স্ব স্ব অবস্থান থেকে প্রচারকার্য চালিয়ে যাচ্ছেন। ভ্যালী সহ অন্যান্য কমিউনিটি মসজিদে ইফতার এবং তারাবির সময় প্রচারের জন্য ভালেনটিয়ার আহ্বান করেছে কমিউনিটি টিম। যদি সর্বস্তরের কমিউনিটির মানুষ একযোগে নির্বাচনী প্রচারণায়  শেষ মুহুর্তে নেমে পড়ে তাহলে ‘হ্যাঁ’ ভোটের মাধ্যমে নেবারহুড কাউন্সিল প্রতিষ্ঠা করা সম্ভবপর বলে অভিজ্ঞমহল মনে করেন।

বৃহত্তর লস এঞ্জেলেসে ৫০,০০০ প্রবাসী বাংলাদেশীর বসবাস। তার মধ্যে থেকে মাত্র ১০,০০০ ভোট সংগ্রহ করতে হলে সকলকেই মাঠে নামতে হবে। সেই আহ্বান জানিয়েছেন নির্বাচনী প্রচারণা কার্যের কমিউনিটি টিম।