দাম্পত্য জীবন কিভাবে সুখের হবে তা অনেকটা নিজেদের উপরই নির্ভর করে। অনেক দম্পতিদের দেখা যায় খুব সুখী আবার অনেকের দম্পতি সুখের হয় না। সুখী দাম্পতিরা অন্যদের থেকে ভিন্ন কাজ করেন যে কারণে তারা সুখী হয়।

যে ৬ কাজের জন্য সুখী দম্পতিরা অন্যদের থেকে সুখী, সেই কাজগুলো জানিয়ে দেওয়া হলো-

১) একে অপরের মতামতকে গুরুত্ব দেওয়া

সুখী দাম্পতিরা একে অপরের মতামতকে গুরুত্ব দিয়ে থাকে। এখানে দু’জনের মতামতই প্রাধান্য থাকে বলে এরা অন্যদের থেকে বেশি সুখী হয়। কোন কিছু বিষয়ে দু’জনের সিদ্ধান্ত নেওয়াকে সম্মান দেওয়া দু’জনেরই কর্তব্য।

২) একে অপরকে ক্ষমা করে দেওয়া

ভুল তো মানুষেরই হয়ে থাকে। তাই বলে এই ভুল নিয়ে যদি দু’জনেই ঝগড়ার সৃষ্টি করে তবে তাদের দাম্পত্য জীবন অসুখী হবে। বরং ভুল হলে একে অপরকে ঠাণ্ডা মাথায় বুঝিয়ে ভুলটি ধরিয়ে দেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ। আর এ কাজ সুখী দাম্পতিরাই করে থাকে, যে কারণে তারা অন্যদের থেকে বেশি সুখী হয়ে থাকে।

৩) দাম্পত্য জীবনে যাদের সন্তান কম

গবেষণায় দেখা গেছে, যে সকল দম্পতির সন্তান একটি অথবা দুটিও থাকতে পারে তারা অন্যদের চেয়ে বেশি সুখী হয়। কেননা দাম্পত্য জীবনে অধিক সন্তান থাকলে সেটা সুখের হয় না। তাই সুখী দম্পতিদের ভিন্ন ভাবনা থাকায় তারা অধিক সুখী হয়।

৪) সংসারের কাজ ভাগ করে নেওয়া

ক্যালিফোর্নিয়ার এক গবেষণায় বলা হয়েছে, সংসারের কাজে দু’জনই অংশ নিলে দম্পতিদের মধ্যে সংযোগ বাড়ে। এ কারণে তাদের সুখী হওয়ার প্রবণতা দেখা যায়। যে দাম্পত্য জীবনে পুরুষ যদি ভাবে স্ত্রীই শুধু সংসারের কাজ করবে তাহলে সেটি বেশি সুখের হবে না। দু’জনেই কাজ ভাগাভাগি করে নিলে সংসারে শান্তি মেলে। যারা সুখী দম্পতি তারা একই কাজ করে থাকেন।

৫) দু’জনেরই সফলতা অর্জন

আমেরিকার এক জরিপে বলা হয়, যে দাম্পত্য জীবনে দু’জনেরই উপার্জন ক্ষমতা থাকে তাদের জীবন সুখের হয়। তারা দু’জনেই সফল। তাদের সংসারে কোন টানাটানি থাকে না। এছাড়া সুখী দম্পতিরা একে অন্যের সাফল্য থাকলে খুব খুশি হয়।

৬) বিশ্বস্ততা

যে দাম্পত্য জীবনে বিশ্বস্ততা বলে বিষয়টা থাকে তাদের জীবন সুখের হয়। যদি বিশ্বস্ততা বিরাজ না করে তবে সেই দাম্পত্য জীবন কোনদিনই সুখের হবে না। তাই সুখী দম্পতিদের একে অপরের মধ্যে বিশ্বাসের কাজ করে বলেই তারা অন্যদের থেকে সুখী।