জাতির গৌরবময় মুহূর্ত স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ উৎক্ষেপণের সাক্ষী হতে ওরল্যান্ডো কেনেডি স্পেস সেন্টারে বাংলাদেশি-আমেরিকানদের বিপুল সমাগম ঘটেছে। জড়ো হয়েছেন নিউ ইয়র্ক, নিউ জার্সি, পেনসিলভেনিয়া, ভার্জিনিয়া, বস্টন, ফ্লোরিডাসহ বিভিন্ন স্থানের প্রবাসীরা। উৎক্ষেপণের তারিখ ১ দিন পিছিয়ে যাওয়ায় সবাইকে ফ্লাইটের টিকিট পরিবর্তনসহ হোটেল-মোটেলের বাড়তি ভাড়া গুণতে হবে। তারপরও উৎসব-আমেজে তেমন ভাটা পড়েনি।

উৎসবে নেতৃস্থানীয়দের মধ্যে মধ্যে আছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান, সহ-সভাপতি এম ফজলুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ, যুগ্ম সম্পাদক আইরিন পারভিন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ফারুক আহমেদ এবং মহিউদ্দিন দেওয়ান, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য মিসবাহ আহমেদ, সোলায়মান আলী, ফরিদ আলম, তৈয়বুর রহমান টনি, নির্বাহী সদস্য শাহানারা রহমান, খোরশেদ খন্দকার, ওয়াশিংটন ডিসির সেক্রেটারি মাহমুদুন্নবী বাকি, পেনসিলভেনিয়া স্টেট কমিটির সভাপতি আবু তাহের বীর প্রতিক, নিউইংল্যান্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ইউসুফ চৌধুরী, আটলান্টা থেকে মুক্তিযোদ্ধা ও মূলধারার রাজনীতিক আলী হোসেন, পিপল এন টেক ইন্সটিটিউটের প্রতিষ্ঠাতা ইঞ্জিনিয়ার আবু হানিফ, ফেমা ক্যাশের প্রধান নির্বাহী ইঞ্জিনিয়ার সাইফুল ইসলাম, বাংলাদেশ-আমেরিকা প্রেসক্লাবের সেক্রেটারি শহিদুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ মো. আবুল কাশেম, নির্বাহী সদস্য নিহার সিদ্দিকী, আশরাফুল বুলবুল প্রমুখ।

১০ মে বৃহস্পতিবার অপরাহ্নে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটির মহাকাশে যাত্রা শুরুর কথা ছিল। তবে শেষ মিনিটে ক্রুটি ধরা পড়ায় তা পিছিয়ে গেছে।

স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ উপলক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য-প্রযুক্তি ও যোগাযোগ বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়, তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, তথ্য-প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ, প্রধানমন্ত্রীর ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি আশরাফুল আলম খোকনসহ ৪৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল।