উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে শান্তি ফিরিয়ে এনেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাই শান্তির জন্য নোবেল পুরস্কারের উপযুক্ত দাবিদার তিনি। এমনটাই মনে করে নোবেল কমিটির কাছে পত্র পাঠিয়েছেন রিপাবলিকান পার্টির ১৮ জন সেনেটর।

ইন্ডিয়ানা প্রদেশের রিপাবলিকান সেনেটর লিউক মেসারের নেতৃত্বে বুধবার নরওয়ের নোবেল কমিটির কাছে পত্রটি পাঠানো হয়। সেই চিঠিতে বলা হয়েছে, কয়েক দশক থেকে উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে চলা যুদ্ধে ইতি টেনেছেন ট্রাম্প। এছাড়াও পিয়ংইয়ংয়ের একনায়ক, কিমের পারমাণবিক অস্ত্র ভাণ্ডারে লাগাম পরিয়েছেন তিনি। এই ঐতিহাসিক অবদান ও বিশ্বে শান্তি স্থাপন করার জন্য ২০১৯ সালের নোবেল পুরস্কারের প্রবল দাবিদার ট্রাম্প।

আগেই ট্রাম্পের সমর্থনে মত দিয়েছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট। তবে সেই পুরস্কারের দাবিদার আরও অনেকেই আছেন। এখনও পর্যন্ত নোবেল কমিটির কাছে ৩৩০ জন দাবিদারের নাম জমা পড়েছে। চলতি বছরের শেষের দিকেই নোবেল জয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে। তা নিয়ে চলছে জল্পনাও।

তবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের মনোনয়ন নিয়ে ইতিমধ্যে দেখা দিয়েছে বিতর্ক। জাতিসংঘসহ একাধিক আন্তর্জাতিক সংস্থার বিরুদ্ধে ক্রমাগত তোপ দেগেছেন ট্রাম্প। সব মিলিয়ে শান্তির জন্য যদি নোবেল পান ট্রাম্প, তাহলে এর থেকে বড় রসিকতা আর কিছুই হবে না বলে মনে করছেন অনেকে।