৩০ এপ্রিল সোমবার, লস এঞ্জেলেস্থ বাংলাদেশ কন্সুলেটে নিযুক্ত কন্সাল জেনারেল বাবু প্রিয়তোষ সাহার বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও মিথ্যা অভিযোগের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠন প্রতিবাদ বিক্ষোভ ও স্মারকলিপি পেশ করেছে।

সম্প্রতি কতিপয় ব্যক্তি কন্সাল জেনারেল প্রিয়তোষ সাহার বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন কিছু অভিযোগ করে এবং অনলাইন পোর্টালে তার বিরুদ্ধে কাল্পনিক অভিযোগ উত্থাপন করে। ক্যালিফোর্নিয়া এস্টেট আওয়ামী লীগ এর সভাপতি শফিকুর রহমান এ অভিযোগের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে, মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের একজন দক্ষ কূটনীতিকের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

ক্যালিফোর্নিয়া আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রব অভিযোগ করেন- বঙ্গবন্ধুর খুনিদের প্রশ্রয়দাতা ও রাজাকারদের ইন্ধনে কতিপয় বিতর্কিত ব্যক্তি ও কন্সুলেট অফিসের এক কর্মকর্তার যোগসাযোগে প্রিয়তোষ সাহার বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন কাল্পনিক অভিযোগ করা হয়েছে।

আব্দুর রব ভাইস কন্সুলার আল মামুনের বিরুদ্ধে নারীর শ্লীলতাহানির অভিযোগ করেন এবং আল মামুনের নারী নির্যাতনের শাস্তির দাবিতে প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন।

কন্সাল জেনারেল প্রিয়তোষ সাহার প্রতি সমর্থন জ্ঞাপন করে ক্যালিফোর্নিয়া যুবলীগের সভাপতি কামরুল হাসান বলেন, একজন শহীদ পরিবারের সন্তানের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। এই ষড়যন্ত্রে জড়িত সরকার বিরোধী একটা চক্র। সেচ্ছাসেবকলীগের পক্ষ থেকে প্রথমে মানব বন্ধন ও পরে স্বারকলিপি দেওয়া হয়। সেচ্ছাসেবকলীগ ক্যালিফোর্নিয়া শাখার সভাপতি শাহ আলম খান চৌধুরী বলেন, ‘আওয়ামী লীগের মধ্য জামাত শিবিরের কিছু অনুচর এবং কনসাল অফিসের রাজাকার প্রেমিক কর্মকর্তা ও কর্মচারীর ইন্ধনে কিছু ব্যক্তি তাদের হীন স্বার্থে এই অপপ্রচারে লিপ্ত।’

সেচ্ছাসেবকলীগের স্বারকলিপিতে উল্ল্যেখ করা হয়, ‘লস এঞ্জেলেসে বসবাসরত বঙ্গবন্ধুর খুনি মহিউদ্দিনের আইনি সহায়তা প্রদানকারীকে কনসাল অফিসে প্রতিষ্ঠার চেষ্টায় বিতর্কিত এক আওয়ামিলীগ নেতা জড়িত। তার ইন্ধনে স্বঘোষিত যুবলীগ নেতা এই অপপ্রচারে জড়িত। তাদের মূল উদ্দ্যেশ্য বঙ্গবন্ধুর খুনি চক্রের সহযোগীদের প্রতিষ্ঠা করা।