চলতি লা লিগার মৌসুমে বার্সেলোনা কোন হারের স্বাদ পায়নি। এমনকি গত মৌসুমের শেষ সাত ম্যাচেও জয় পেয়েছিল বার্সা। সব মিলিয়ে লিগে অপরাজিত থাকার রেকর্ডটা বার্সা ৪০ এ নিয়ে গেলে। তবে ম্যাচটা ভালভার্দের শিষ্যদের জন্য মোটেও সহজ ছিল না। ঘরের মাঠে বার্সাকে বেশ খাটিয়েছে সেল্টা ভিগো। শেষমেষ সমতায় শেষ হয়েছে সেল্টার বিপক্ষে বার্সার ম্যাচটি।

প্রথমে উসমান ডেম্বেলের গোলে ৩৬ মিনিটে এগিয়ে যায় বার্সা। এরপর প্রথমার্ধের শেষ বাঁশি বাজার একটু আগে বার্সার জালে গোল দিয়ে সমতা নিয়ে প্রথমার্ধ শেষ করে সেল্টা। দ্বিতীয়ার্ধে আবার বার্সা গোল করে এগিয়ে যায়। এবার বার্সার ত্রাতা পাকো আলকানতারা। তিনি ৬৪ মিনিটে গোল করে বার্সেলোনাকে জয়ে পথে রাখেন। কিন্তু ৭২ মিনিটে বার্সা বড় ধাক্কাটা খাই। লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন বার্সা মিডফিল্ডার সার্জিও রবার্তো। এরপর সমতায় ফেরার দারুণ সুযোগ পায় সেল্টা ভিগো।

সুযোগটি কাজেও লাগায় স্বাগতিকরা। সেল্টার স্টাইকার আসপাস ৮২ মিনিটে গোল করে সমতায় ফেরায় দলকে। তবে সেল্টা নিজেদের মাঠ পেয়ে শুরু থেকেই বার্সাকে বেশ পরীক্ষায় ফেলে। বেশে কয়েকটি জোরালো আক্রমণ করেছে সেল্টা। এবারের লা লিগায় বার্সার কোন খেলোয়াড় প্রথম লাল কার্ড দেখেছে। এরপর গোল খেলে সমতা নিয়ে ঘরে ফেরা ছাড়া উপায় ছিল না বার্সার।

পুরো ম্যাচে সেল্টা ৮ বার বার্সার গোল শট নিয়েছে। অথচ বার্সা গোলে শট নিতে পেরেছে মাত্র ৬ বার। ৬০ মিনিটে বার্সা কৌটিনহোকে তুলে নিয়ে মেসিকে মাঠে নামায়। এরপর সার্জিও রবার্তো লাল কার্ড দেখলে কাতালানদের আক্রমণের ধার কমে যায়। মেসিকে মাঠে নামানোর পরপরই বার্সা অবশ্য লিড পায়। প্রথমার্ধেও বার্সাকে বারবার আক্রমণ করে সেল্টা। ৩৪ মিনিটে সেল্টার খেলোয়াড় গোল করার দারুণ এক সুযোগ পায় কিন্তু ৩৬ মিনিটে এগিয়ে যায় বার্সা।

এছাড়া ম্যাচের ১০ মিনিটে সেল্টা দারুণ একটা সুযোগ পায় কিন্তু গোল করতে পারেনি। তবে ২৫ মিনিটে বার্সাও দারুণ এক সুযোগ পেয়েছিল। কিন্তু প্রথমার্ধের ২৫ মিনিটে পাউলিনহোর হেড গোলের একটু বাইরে দিয়ে গেলে সুযোগ হাতছাড়া হয় বার্সার। ২৯ এবং ৩৪ মিনিটে আবার আক্রমণ শানে সেল্টা ভিগো কিন্তু তা থেকেও গোল পায়নি দলটি।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই সেল্টা আক্রমণ করে খেলতে থাকে। ৫২ মিনিটেই সেল্টা আক্রমণ করে। কিন্তু ডেনিস সুয়ারেজ দারুণভাবে স্বাগতিকদের রুখে দেয়। সার্জিও রবার্তো লাল কার্ড দেখার পরপরই সেল্টা খেলোয়াড় আসপাস দারুণ শট নেন। কিন্তু লক্ষ্যে থাকেনি তার শট। ৮২ মিনিটে গোল করে চলতি লা লিগায় মেসির ২৯, রোনালদোর ২৩ এবং সুয়ারেজের ২৩ গোলর পর সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন আসপাস। তার লা লিগায় গোল সংখ্যা ২০ টি।