গত ২৬ মার্চ হলিউডের ষ্টার অব ইন্ডিয়া রেস্টুরেন্টে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল ক্যালিফোর্নিয়া শাখার উদ্যোগে স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত হয়েছে। ক্যালিফোর্নিয়া বিএনপি’র সভাপতি শামসুজ্জোহা বাবলুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এম ওয়াহিদ রহমানের পরিচালনায় সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলায়াত করেন সংগঠনের যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর হোসেন।

স্বাধীনতা দিবস এর সভায় বক্তারা স্বাধীনতার ঘোষক, মুক্তিযুদ্ধের বীর সেনানী, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তমকে গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। তারা বলেন, আজকের অবৈধ হাসিনা সরকার স্বাধীনতার ইতিহাস বিকৃতি করে জেড ফোর্সের বীর সেনানী সেক্টর কমান্ডার জিয়াউর রহমান বীর উত্তম এর নাম মুছে ফেলার বৃথা চেষ্টা করে যাচ্ছে। তারা জিয়াতঙ্কে ভুগছে। তারা আয়নায় নিজেদের স্বৈরাচারী চেহারা দেখেও আতংকিত। তাই সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় জেলে রেখে একতরফা নির্বাচন করার পায়তারা করছে। গুম-খুন-পুলিশি নির্যাতনে মৃত্যু এবং জেল-জুলুম-হুলিয়া এই সরকারের মৃত্যু ডেকে আনছে। দেশে গণতন্ত্রের বারোটা বেজে গেছে। তারা অবিলম্বে দেশনেত্রীর মুক্তি দাবি করেন।

সভায় বক্তব্য রাখেন সহসভাপতি নিয়াজ মোহাইমেন, সাইফুল আনসারী চপল, আহসান হাফিজ রুমি, জুনেল আহমেদ, অপু সাজ্জাদ, শওকত হোসেন আনজিন, আশরাফুল আলম হেলাল, যুগ্ম সম্পাদক: মোহাম্মদ রফিকুজ্জামান জুয়েল, আলমগীর হোসেন, মোহাম্মদ কামাল হোসেন তরুণ, শাহাদাত হোসেন শাহীন, দপ্তর সম্পাদক: মোশাররফ হোসেন ইমন, ক্রীড়া সম্পাদক: ইফতেখার হোসেন ফাহিম, যুব বিষয়ক সম্পাদক: কোহিনুর রহমান, শিক্ষা সম্পাদক: সাঈদ খান প্রমুখ।
সভাশেষে সবাইকে নৈশভোজে আপ্যায়ন করা হয়।
এদিকে এক বিবৃতিতে খালেদা জিয়াকে কারান্তরীন রেখে জামিন নিয়ে সরকারের দুরভিসন্ধিমূলক রাজনৈতিক কার্য সিদ্ধির স্থগিতাদেশ এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদীদল ক্যালিফোর্নিয়া শাখা। সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া ও বি এন পি কে আগামী নির্বাচন থেকে দূরে রেখে ৫ জানুয়ারীর মত বিনাভোটের নির্বাচন করে ক্ষমতায়নের স্বপ্ন দেখছে সরকার। খালেদা জিয়ার জামিনে কাল ক্ষেপনে নিন্দা-ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেছেন, বেগম জিয়া এদেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী। তাকে অন্যায়ভাবে একের পর এক মিথ্যা মামলায় আটকে রাখা হয়েছে। দেশনেত্রীর মুক্তি না হওয়া পর্য়ন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে। এদিকে গত ৬ই মার্চ প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপি আয়োজিত মানববন্ধন থেকে আটক করে রিমান্ডে টর্চার করে মেরে ফেলা হয়েছে ছাত্রদল নেতা জাকির হোসেন মিলনকে। একই সঙ্গে বিএনপির কর্মসূচিতে পুলিশের হামলা ও ব্যাপক ধরপাকড় এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে দলের নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার করা বন্ধ ও স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর রায়, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল ও বি এন পি নেতা শামসুজ্জামান দুদু, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু সহ সকল নেতা-কর্মীর মুক্তি দিতে সরকারের প্রতি আহবান জানিয়েছেন। বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেছেন, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল ক্যালিফোর্নিয়া শাখার সভাপতি শামসুজ্জোহা বাবলু , সাধারণ সম্পাদক এম ওয়াহিদ রহমান, সহসভাপতি নিয়াজ মোহাইমেন, সাইফুল আনসারী চপল, আহসান হাফিজ রুমি, জুনেল আহমেদ, আফজাল হোসেন শিকদার, অপু সাজ্জাদ, শওকত হোসেন আনজিন, নুরুল ইসলাম, মার্শাল হক, আশরাফুল আলম হেলাল, আবুল হাসনাত মন্টু চৌধুরী, ইলিয়াস শিকদার, এলেন ইলিয়াস খান, সবুর খান মামুন, হাসানুজ্জামান মিজান, মিশর নুন, মোহাম্মদ মঞ্জু, আমজাদ হোসেন, মোঃ রফিক, মেহেদী হাসান, বাদল খান, মোহাম্মদ সেলিম রেজা পিন্টু, যুগ্ম সম্পাদক: ফারুক হাওলাদার, রনি জামান, মোহাম্মদ রফিকুজ্জামান জুয়েল, আলমগীর হোসেন, আসাদুজ্জামান রাজু, দেলোয়ার চৌধুরী, সহ সাধারণ সম্পাদক: খন্দকার জাভেদ, হোসেন লিটু, শেখ সেলিম, হেলাল আহমেদ ভূইয়াঁ, মোহাম্মদ শাহানুর, মোহাম্মদ ফরিদ আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক: শাহাদাত হোসেন শাহীন, লোকমান হোসেন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক: নয়ন বড়ুয়া, দপ্তর সম্পাদক: আবু তাহের সাজু, সহ দপ্তর সম্পাদক: মোশাররফ হোসেন ইমন, কোষাধক্ষ্: মোঃ আব্দুল মান্নান, সহ কোষাধক্ষ্: আক্তার মাতুব্বর, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক: মোঃ শফিকুল ইসলাম পলাশ, সহ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক: আবুল কায়সার, তত্ব ও প্রযুক্তি সম্পাদক: শাহ নেওয়াজ, সহ তত্ব ও প্রযুক্তি সম্পাদক: এ কে এম আসিফ, ক্রীড়া সম্পাদক: ইফতেখার হোসেন ফাহিম, যুব বিষয়ক সম্পাদক: কোহিনুর রহমান, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক: মেহেদী হাসান, শিক্ষা সম্পাদক: সাঈদ খান, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক: হাফেজ মোহাম্মদ বেলাল, সহ ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক: মাহতাব কবির ভূঁইয়া, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক: মোঃ মিজানুর রহমান, সাংস্কৃতিক সম্পাদক: শাহনাজ বুলবুল, সহ সাংস্কৃতিক সম্পাদক: সোহেল মিয়া, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক:ফেরদৌস কবির সুজন, সহ স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক: রাজু ইসলাম, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা: ফরিদা বেগম, সহ মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা: মনিরা মিজান, আইন বিষয়ক সম্পাদক: ওমর ফারুক, সহ আইন বিষয়ক সম্পাদক: সারোয়ার সুমন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদকঃ আবুল খায়ের, সহ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদকঃ ইয়াসির আরাফাত মুন্না, সমাজ কল্যাণ সম্পাদকঃ মোঃ খসরু রানা, সহ সমাজ কল্যাণ সম্পাদকঃ তানভীর আহমেদ প্রমুখ।