আগামী ৪৭তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে বাফলার ২দিন ব্যাপী ১২তম বাংলাদেশ ডে প্যারেড এণ্ড ফেস্টিবল, ২০১৮ এর ইসি মিটিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ৪ মার্চ (রোববার) বিকেল ৫টায় বাফলার নিজস্ব কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সভার শুরুতেই বাফলার সভাপতি নজরুল আলম সম্প্রতি অধ্যাপক জাফর ইকবালের উপর হামলার তীব্র প্রতিবাদ জানান এবং নিন্দা জ্ঞাপন করেন। বাফলা সেই সাথে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি সম্মান প্রদর্শণ করে এক মিনিট নিরবতা পালন করে। বাফলার ক্যাবিনেট লিটল বাংলাদেশ প্রেস ক্লাবকে স্বাগত জানিয়ে মিটিং এ প্রেস ক্লাবের সভাপতি কাজী মশহুরুল হুদা ও সাধারণ সম্পাদক লস্কর আল মামুনকে ফুলের শুভেচ্ছা জানায়।

মিটিং এ আসন্ন প্যারেড নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। এবারের গ্র্যান্ড মার্শাল হিসেবে আসবেন কংগ্রেসম্যান জিমি গোমেজ। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নিতে বাংলাদেশ থেকে আসছে আয়ুব বাচ্চুর এল আর বি ব্যান্ড এবং জিনাত জাহান মুন্নি।

এখানে উল্লেখ্য যে- ইস্টার সানডে হওয়াতে প্যারেড রোববারের পরিবর্তে শনিবার ৩১ মার্চ দুপুর ২টা থেকে অনুষ্ঠিত হবে। ফেস্টি চলবে ১ এপ্রিলের মধ্যরাত পর্যন্ত। প্রতিবারের মত এবারও দুদিন ভার্জিল মিডল হাইস্কুলে (১৫২, নর্থ ভারমন্ট বুলেবার্ড) সারাদিন ব্যাপী বাংলাদেশ ডে প্যারেড এণ্ড ফেস্টিবল হবে। এবারের প্যারেডে বিশেষ সংযোজন থাকবে বলে জানা গেছে।

বঙ্গবন্ধুর অনুসারীদের সহযোগিতায় প্রথমবারের মত প্যারেডে শিশু কিশোর সহ বঙ্গবন্ধুর ছবি নিয়ে প্যারেডে অংশগ্রহণ করবে। জাতির পিতার ছবি সম্বলিত অংশগ্রহণ দেশ, জাতি ও প্যারেডের মান বৃদ্ধি পাবে বলে অনেকেই মনে করছেন।

বাফলার ক্যাবিনেট এই উদ্যোগকে স্বাগত ও অভিনন্দ জানিয়েছে।

এদিকে প্যারেডের আর মাত্র ৩ সপ্তাহ বাকী। প্রস্তুতিও প্রায় সম্পন্নের পথে। ইতিমধ্যে লস এঞ্জেলেস শহরের বাংলাদেশী মহলে পোস্টার ও ফ্লাইয়ারে ছেয়ে গেছে। সকলেই অধির আগ্রহে প্যারেডের জন্য অপেক্ষা করছে। সবার আগ্রহ একটাই কবে আসবে বাংলাদেশ ডে প্যারেড। কারণ বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে দেশের বাইরে সবচেয়ে বৃহত্তর পরিসরে এই আয়োজন করা হয়। আমেরিকার মত দেশে লস এঞ্জেলেসের লিটল বাংলাদেশ ঘিরেই এই ফেস্টিবল হয়ে থাকে। যার জন্য প্রধান সড়কও থাকে বন্ধ। যা দেশের মান বিশ্ব দরবারে অনেক উপরে ওঠাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে আসেছে।